কোন জেলার কোন হাসপাতালে মিলছে করোনার চিকিৎসা ? জেনে নিন এক ঝলকে

কোন জেলার কোন হাসপাতালে মিলছে করোনার চিকিৎসা ? জেনে নিন এক ঝলকে

করোনা টেস্ট:

পশ্চিমবঙ্গে করোনা টেস্ট করা হচ্ছে
✓ কলকাতার বেলেঘাটা আইডির অন্তর্গত নাইসেড
✓ এসএসকেএম হাসপাতাল
✓ মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ
✓ নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজ।
✓ বেসরকারি হাসপাতালে মধ্যে অ্যাপোলো গ্লেনিগেলস হাসপাতাল।


শহরে বেসরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন পরিষেবা

✓ILS Hospital (সল্টলেক):
> আইসোলেশন ওয়ার্ড শয্যা- ৫টি ।
> ভেন্টিলেটর যুক্ত ঘর ও শয্যা- ৪টি।


✓ ILS Hospital (দমদম):
> আইসোলেশন ওয়ার্ডের শয্যা- ৭টি ।
> ভেন্টিলেটর যুক্ত ওয়ার্ডে শয্যা- ৯টি ।


✓ ILS Hospital (হাওড়া):
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- ৪টি ।
> ভেন্টিলেটর যুক্ত ওয়ার্ডে শয্যা- ৭টি ।


✓ অ্যাপোলো গ্লেনিগেলস হাসপাতাল:
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- ১৪টি,
> বিশেষ পরিষেবা যুক্ত আইসোলেশনের শয্যা- ৮টি।


✓ ফর্টিশ হাসপাতাল:
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- ২৭টি ।


✓ আর এন টেগর ইনস্টিটিউট অফ কার্ডিয়াক সায়েন্স:
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- ৫টি (ভেন্টিলেশন যুক্ত) ।


✓ মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল:
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- ১২টি ।
> ভেন্টিলেশন- ৭টি ।


✓ আমরি হাসপাতাল (ঢাকুরিয়া, মুকুন্দপুর, সল্টলেক):
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- সবকটি শাখা মিলিয়ে মোট ১৬ শয্যা রয়েছে ।
> ভেন্টিলেশন আছে- ৪টি ।


✓পিয়ারলেস হাসপাতাল:
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- ৮টি।
> ভেন্টিলেশন শয্যা- ২টি।


✓ রুবি জেনারেল হাসপাতাল:
> আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা- ২টি ।


জেলা ভিত্তিক সরকারি হসপিটালে মোট আইসোলেশনের শয্যা সংখ্যা


✓ বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল- ৩৫টি


✓ নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল- ১৮টি


✓ ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ- ২টি


✓ মেডিকেল কলেজ- ২৪টি


✓ আরজিকর- ১২টি


✓ এমআরবাঙ্গুর- ১৫০টি


হাওড়া:

✓ হাওড়া ডিস্ট্রিক্ট হাসপাতাল- ৪টি

✓ উলুবেরিয়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল- ৪টি

✓ সত্যবালা দেবী আইডি হাসপাতাল- ১০টি


হুগলি:

✓হুগলি ডিস্ট্রিক্ট হাসপাতাল- ১০টি

✓ শ্রীরামপুর ওয়ালশ এসডি হাসপাতাল- ৮টি

✓আরামবাগ এসডি হাসপাতাল- ২০টি


দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা:

✓বারুইপুর এসডিএইচ- ৪টি

✓সোনারপুর আর এইচ- ১৭টি

✓বিজয়গড় এসজিএইচ- ২টি

✓বিদ্যাসাগর এসজিএইচ- ৮টি


উত্তর ২৪ পরগনা:

✓বসিরহাট এইচডি

✓বসিরহাট ডিস্ট্রিক্ট হাসপাতাল- ৫টি

জেলায় মোট ১২ টি সরকারি হাসপাতালে ৩২ টি আইসোলেশন শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে।


আলিপুরদুয়ার:

✓আলিপুরদুয়ার ডিস্ট্রিক্ট হাসপাতাল- ১০টি

✓ফালাকাটা এসএসএইচ- ৩০টি


বাঁকুড়া:

✓বাঁকুড়া সম্মিলনী এনসিএইচ- ১৫টি


বিষ্ণুপুর

✓বিষ্ণুপুর ডিস্ট্রিক্ট হাসপাতাল- ৫টি


বীরভূম:

✓সিউড়ি ডিস্ট্রিক্ট হাসপাতাল- ২৪টি

✓বোলপুর এসডিএইচ- ১০টি


পুরুলিয়া:

✓মোট আইসোলেশন শয্যা দুটি হাসপাতাল মিলিয়ে- ৮টি


** রামপুরহাট

✓দুটি হাসপাতালে- ৮টি


কোচবিহার:

✓কোচবিহার গভর্মেন্ট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল- ৮টি


দক্ষিণ দিনাজপুর:

✓বালুরঘাট ডিএইচ- ২৫টি

✓গঙ্গারামপুর এসডি হাসপাতাল- ৩৪টি


মালদা:

✓মালদা মেডিকেল কলেজ- ৫০টি


মুর্শিদাবাদ:

✓মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ- ১০টি


নদিয়া

✓নদীয়া জেলা হাসপাতাল- ১২টি

✓রানাঘাট এসডিএইচ- ১৮টি

এই জেলায় সমস্ত সরকারি হাসপাতাল মিলিয়ে আরো আইসোলেশন বিভাগের শয্যা সংখ্যা- ১৯টি

 


 

বর্ধমান (পশ্চিম):

✓আসানসোল জেলা হাসপাতাল- ২৪টি

✓দুর্গাপুর জেলা হাসপাতাল- ৬টি


বর্ধমান ( পূর্ব)

✓বর্ধমান মেডিকেল কলেজ- ৪০টি

✓কাটোয়া এসডিএইচ- ২০টি

✓কালনা এসডিএইচ- ২৪টি


মেদিনীপুর:

✓মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ- ১০টি

এছাড়াও পশ্চিম ও পূর্ব মেদিনীপুরের সমস্ত সরকারি হাসপাতাল মিলিয়ে শয্যা সংখ্যা- ৬৫টিন


নন্দীগ্রাম এসএসএইচ- ৪০টি

এছাড়া কাঁথি ও দীঘা শাখায় সরকারি হাসপাতাল দুটি মিলিয়ে আরও ৮ টি শয্যা রয়েছে।

Leave a Reply