কোভিড-১৯ যোদ্ধাদের বিরাট ধন্যবাদ জ্ঞাপন করবে ভারতীয় সেনা

কোভিড-১৯ যোদ্ধাদের বিরাট ধন্যবাদ জ্ঞাপন করবে ভারতীয় সেনা

ভারতীয় বায়ুসেনার জেট ও পরিবহন বিমান থেকে রবিবার ফুলের পাপড়ি ছড়ানো হবে হাসপাতাল ও জাতীয় পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলির উপরে।

পাশাপাশি নৌসেনার তরফে জাহাজগুলিতে জ্বালানো হবে আলো। আর এই সবই করা হবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে স্বাস্থ্যকর্মী ও অন্যান্য আপৎকালীন কর্মীদের শ্রদ্ধা জানাতে।

শুক্রবার চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত (Bipin Rawat) তিন সেনাপ্রধানের সঙ্গে ঘোষণা করেন এব্যাপারে। জানান, বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রদর্শনের জন্যই এই পদক্ষেপ করবেন তাঁরা।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা আমাদের কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই প্রত্যেক করোনা যোদ্ধা এবং দেশের সমস্ত নাগরিককে। ৩ মে সেনাবাহিনীর তিন শাখার তরফ থেকে বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করা হবে।’’

এই বিশেষ সম্মান প্রদর্শনের অন্যতম হল বায়ুসেনার ‘ফ্লাই পাস্ট’। আকাশপথে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী এবং উত্তর-পূর্বের অসম থেকে গুজরাতের কচ্ছ পর্যন্ত পাড়ি দেওয়া।

এদিকে নৌবাহিনী জাহাজগুলিকে আলোকসজ্জায় সজ্জিত করবে ভারতীয় উপকূলে। হেলিকপ্টারে হাসপাতালগুলির উপরে ফুলের পাপড়ি বর্ষণ করা হবে।

হাসপাতালের বাইরে সেনাবাহিনীর তরফে ব্যান্ড বাজানো হবে অধিকাংশ জেলার হাসপাতালের সামনে।

এর আগে আপৎকা‌লীন কর্মীদের প্রতি সম্মান জানানোর প্রথম ঘটনাটি ঘটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অনুরোধে।

সেই সময় সকলে ব্যালকনি থেকে হাততালি দিয়েছিলেন। এরপর আলো নিভিয়ে মোমবাতি জ্বালিয়েও সকলকে সম্মান জানানোর আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

✓ এই ধন্যবাদ জ্ঞাপনের সূচনা হবে দিল্লিতে পুলিশ সৌধের উপরে ফুলবর্ষণের মধ্যে দিয়ে। একই সঙ্গে অন্যান্য শহরের পুলিশ সৌধের উপরেও একই ভাবে বর্ষিত হবে ফুলের পাপড়ি।

✓ দিল্লিতে সকাল ১০.৩০ মিনিটে বায়ুসেনার যুদ্ধবিমান শহরের হাসপাতালগুলির উপরে ফুলের পাপড়ি বর্ষণ করা শুরু করবে। এর মধ্যে রয়েছে স্যার গঙ্গারাম হাসপাতাল, রাজীব গান্ধি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল ও দীনদয়াল উপাধ্যায় হাসপাতাল।

✓ সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানাচ্ছে, মধ্য দিল্লির রাজপথ থেকে ভারতীয় বায়ুসেনার সুখোই-৩০এমকেআই, মিগ-২৯ ও জাগুয়ার বিমানগুলি সকাল ১০টায় উড়তে শুরু করে শহরজুড়ে চক্কর কাটবে।

✓ মুম্বইয়ে সেনাবিমান কিং এডওয়ার্ড মেমোরিয়াল হাসপাতাল ও কস্তুরবা গান্ধি হাসপাতাল সহ অন্যান্য হাসপাতালের উপরে ফুল বর্ষণ করবে।

✓ যুদ্ধবিমানগুলির মতোই দিল্লি ও জাতীয় রাজধানী অঞ্চলকে প্রদক্ষিণ করবে সি-১৩০ পরিবহন বিমানগুলি। পাখিদের চলাফেরার কথা মাথায় রেখে ৫০০ থেকে ১০০০ মিটার উচ্চতায় উড়বে বিমানগুলি।

✓ বিমানগুলি থেকে ফুল বর্ষণের এই দৃশ্য দূর দূরান্ত থেকে দেখা যাবে, কেননা সব শহরেই দৃশ্যমানতা অনেক বেড়ে গিয়েছে আগের থেকে। যেহেতু লকডাউনের ফলে দূষণের পরিমাণ অভাবনীয় ভাবে হ্রাস পেয়েছে।

✓ সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে জানান যাচ্ছে নৌ আধিকারিকরা জান‌িয়েছেন, সন্ধ্যা ৭.৩০ থেকে ১১.৫৯ পর্যন্ত মুম্বইয়ে গেটওয়ে অফ ইন্ডিয়ার সামনে পাঁচটি জাহাজকে আলোকসজ্জিত করে রাখবে নৌসেনা। সেখানে থাকবে ‘করোনা যোদ্ধাদের স্যালুট করছে ভারত’ লেখা ব্যানারও।

✓ পাশাপাশি গোয়ায় নৌসেনার তরফ থেকে করোনা যোদ্ধাদের সম্মানার্থে রচিত হবে মানবশৃঙ্খল। বিশাখাপত্তনমেও দু’টি জাহাজ সন্ধ্যা ৭.৩০ থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত উপকূলে আলো জ্বালিয়ে রেখে সম্মান জানাবে করোনা যোদ্ধাদের।


শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইট করে জানান, ভারতীয় সেনা কীভাবে সব সময় দেশকে নিরাপদ রাখতে নিয়োজিত। বিপর্যয়ের সময় তারা কীভাবে মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। এবার সেনার তরফে অভিনব উপায়ে কোভিড-১৯ যোদ্ধাদের প্রতি বিরাট ধন্যবাদ জানানোর ঘোষণাটির কথাও তাঁর টুইটে লেখেন প্রধানমন্ত্রী।