জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কি বললেন জেনে নিন এক নজরে

জাতির  উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কি বললেন জেনে নিন এক নজরে

করোনা ভাইরাস মহামারী চলাকালীন ষষ্ঠ বার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু অন্যবারের তুলনায় এবার জল্পনা বহুগুণে বেশি। প্রধানমন্ত্রী শেষবার দেশের উদ্দেশে ভাষণ দেন ১২ মে, তখন তিনি অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে ২০ লাখ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করেন।

জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কি বললেন জেনে নিন এক নজরে

✓ সব দেশবাসীর কাছে প্রার্থনা, এই সময়ে নিজের খেলায় রাখুন। করোনায় মৃত্যুর হার দেখলে বিশ্বের অনেক দেশের ভারতের অবস্থা অনেক ভালো। সময়োচিত লকডাউনের কারণে পরিস্থিতি ভালো আছে।

✓ যখন থেকে দেশে লকডাউন শুরু হয়েছে, তখন থেকে ব্যক্তিগণ এবং সামাজিক স্তরে দায়িত্বজ্ঞানহীনতা বাড়ছে। আগে আমরা মাস্ক পরা, দু’গজ দূরত্ব মেনে চলা, দিনে একাধিকবার ২০ সেকেন্ড ধরে হাত ধোয়ার মতো বিষয়ে অত্যন্ত সতর্ক ছিলাম।

✓ দেশের প্রধানমন্ত্রী থেকে গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান – কেউ নিয়মের উর্ধ্বে নন।

✓ বর্ষায় কৃষিক্ষেত্রে বেশি কাজ হয়। অন্য ক্ষেত্রে কাজের কিছুটা চাপ কম থাকে। তারপর বিভিন্ন উৎসব আসবে। খরচও বাড়বে।

✓ তাই প্রধানমন্ত্রী গরিব অন্ন যোজনার মেয়াদ বাড়িয়ে দিওয়ালি এবং ছটপুজোর শেষপর্যন্ত করা হল। অর্থাৎ আগামী নভেম্বরের শেষ পর্যন্ত করা হল। আরও পাঁচ মাস পর্যন্ত ৮০ কোটি মানুষ প্রতি মাসে ৫ কিলো গম বা চাল বিনামূল্যে পাবেন। পাশাপাশি এক কিলো ডাল পাবেন।

✓ প্রধানমন্ত্রী গরীব কল্যাণ অন্ন যোজনার মেয়াদ বাড়ানোর ফলে বাড়তি ৯০,০০০ কোটি টাকা খরচ হবে। যদি তিন মাসের খরচ যোগ করেন, তাহলে অঙ্কটা প্রায় ১.৫ লাখ কোটি টাকা হবে।

✓ গত তিন মাসে ২০ কোটি গরিব পরিবারের জনধন অ্যাকাউন্টে ৩১,০০০ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে ন’কোটির বেশি কৃষকের অ্যাকাউন্টে ১৮,০০০ কোটি টাকা জমা করা হয়েছে।

✓ আরও একটি জিনিসে অবাক হয়ে গিয়েছে বিশ্ব। তা হল – ৮০ কোটির বেশি মানুষের বিনামূল্যে রেশন দিয়েছে ভারত। অর্থাৎ করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সময় পরিবারের প্রতিটি সদস্যকে পাঁচ কেজি গম বা চাল দেওয়া হয়েছে।