ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের সংজ্ঞা পরিবর্তন, মিলবে গ্যারান্টি ছাড়াই ঋণ

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের সংজ্ঞা পরিবর্তন, মিলবে গ্যারান্টি ছাড়াই ঋণ

প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত আত্মনির্ভর ভারত অভিযানের আওতায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে গ্যারান্টি ছাড়াই দেওয়া হবে ব্যবসায়িক ঋণ। বুধবার এই ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।

করোনার প্রভাবে নিস্তেজ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার উদ্দেশে মঙ্গলবার ২০ লাখ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এ দিন কেন্দ্রীয় প্যাকেজ ব্যাখ্যা করতে বসে অর্থমন্ত্রী প্রথমেই জানান, বর্তমান পরিস্থিতিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের সংজ্ঞায় পরিবর্তন এনেছে সরকার।

তিনি জানিয়েছেন, অতিক্ষুদ্র শিল্পে এখন ১ কোটি টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ ও বাৎসরিক ব্যবসায়িক লেনদেনের পরিমাণ হতে হবে ৫ কোটি টাকার মধ্যে। ক্ষুদ্র শিল্পে ন্যূনতম বিনিয়োগ অর্থ ধরা হয়েছে ১০ কোটি টাকা পর্যন্ত এবং ন্যূনতম বাৎসরিক ব্যবসায়িক লেনদেন হতে হবে ৫০ কোটি টাকার মধ্যে।

মাঝারি শিল্পে বিনিয়োগ অর্থের পরিমাণ বাড়িয়ে ২০ কোটি টাকা পর্যন্ত এবং বাৎসরিক লেনদেনের পরিমাণ হতচে হবে ১০০ কোটি টাকার মধ্যে।

অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, পরিবর্তিত সংজ্ঞায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে (MSME) মোট ৩ লাখ কোটি টাকা ব্যবসায়িক ঋণের জন্য বরাদ্দ করেছে প্রশাসন।

যে সমস্ত সংস্থার অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ ২৫ কোটি টাকার মধ্যে অথবা যাদের বাৎসরিক লেনদেনের পরিমাণ ১০০ কোটি টাকা, তারাই এই ঋণের জন্য বিবেচিত হবে।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ১০,০০০ কোটি টাকার একটি ‘ফান্ড অফ ফান্ডস’ গঠন করা হবে যার সুবাদে ইকুইটি বাবদ উন্নয়নশীল ও নির্ভরযোগ্য শিল্প সংস্থাকে ঋণ দেওয়া হবে।

ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে একটি মূল তহবিলের অধীনে কয়েকটি ক্ষুদ্র তহবিল গড়ে তোলা হবে। ক্ষুদ্র তহবিল মারফৎ ৫০,০০০ কোটি টাকা ঋণ বাবদ খরচ করা হবে।