রাজ্যের সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে সূরা বিক্রেতা ও সূরাপ্রেমীরা

রাজ্যের সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে সূরা বিক্রেতা ও সূরাপ্রেমীরা

কেন্দ্রের নির্দেশিকা মতো ‘কনটেনমেন্ট জোন’ ছাড়া সোমবার থেকে দেশের সর্বত্র মদের দোকান খুলতে চলেছে। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি রাজ্য সরকার।

আজ নবান্নে বৈঠকের পর মদের দোকান খুলবে কিনা, সেই প্রশ্নের উত্তর মিলবে।

বর্ধিত লকডাউন নিয়ে আগেই নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। সেই অনুযায়ী, শপিং মল ছাড়া অন্য দোকানে মদ বিক্রির অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্র। তবে ‘কনটেনমেন্ট জোন’-এ মদের দোকান খোলায় নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে।

কেন্দ্রের নির্দেশিকা অনুযায়ী তৃতীয় দফার লকডাউনে রাজ্যে কোন কোন ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হবে, তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়নি নবান্ন।

বিষয়টি নিয়ে আজ প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কী কী গতিবিধিতে ছাড় দেওয়া হবে, তা সেই বৈঠকে চূড়ান্ত হবে।

প্রাথমিকভাবে খবর, কেন্দ্রের নির্দেশিকা মেনে আজ থেকে মদের দোকান খুলে দিতে পারে রাজ্য। দেশি বা বিলেতি মদের ‘অফ শপ’ বিক্রি হবে। অর্থাৎ দোকান থেকে মদ কিনে বাড়িতে চলে যেতে হবে।

তবে মদ পেতে অবশ্য দুপুরের পর পর্যন্ত সুরাপ্রেমীদের অপেক্ষা করতে হবে বলে সংশ্লিষ্ট মহলের ধারণা।

পাশাপাশি, লকডাউন চলকালীন মদের উপর বাড়তি ৩০ শতাংশ কর চাপিয়েছে রাজ্য। ফলে আজ থেকে মদ কিনতে গেলে বাড়তি দাম গুনতে হবে।

কেন্দ্রের নির্দেশ মতো ছ’ফুট দূরত্বের গণ্ডি কাটা হয়েছে। সামাজিক দূরত্বের বিধি মেনে মদ বিক্রির যাবতীয় আয়োজন হয়ে গিয়েছে।

এখন শুধু রাজ্যের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় রয়েছেন ব্যবসায়ীরা ও সুরাপ্রেমিরা ।